Sunday, January 16, 2022
Home > ইসলাম > রমযানে মিথ্যা, গীবত, অশ্লীল কথাবার্তা পরিহার করুন!

রমযানে মিথ্যা, গীবত, অশ্লীল কথাবার্তা পরিহার করুন!

Spread the love
আহমাদ কাশফী : পবিত্র রমযানুল মোবারক সংযমের মাস। এ মাসে আমরা আল্লাহর সন্তুষ্টি অর্জনের লক্ষেই সারাদিন পানাহার ত্যাগ করে রোজা রাখি। আমাদের রোজা আল্লাহর নিকট গ্রহণযোগ্য হলে আল্লাহ তা’আলা স্বয়ং তার প্রতিদান দেওয়ার ঘোষনা দিয়েছেন। আর, রোজা তখনই আল্লাহর নিকট গ্রহণযোগ্য হবে, যখন রোজার সমস্ত হুকুম -আহকাম সঠিকভাবে গুরুত্বের সাথে আদায় করা হবে।বড়ই পরিতাপের বিষয় হচ্ছে, আজ আমরা সারাদিন পানাহার পরিহার করে রোজা রাখছি ঠিক। কিন্তু, অশ্লীল কথাবার্তা, ঝগড়া-বিবাদ, অহেতুক কাজকর্ম রোজাবস্থায়ও ত্যাগ করিছি না। রোজাবস্থায় এগুলো অত্যান্ত গর্হিত ও অবশ্যই পরিহার করণীয়। রোজাবস্থায় এ সকল কাজ সম্পর্কে হাদীসে কঠোরভাবে নিষেধ করা হয়েছে। বুখারী শরীফ রাসূল সাঃ- এরশাদ করেন,যে ব্যক্তি রোজা রেখে মিথ্যা কথা বলে।এবং তার উপর আমল না ছাড়ে। তাহলে, তার খানাপিনা ছেড়ে দেওয়ার (রোজা রাখার) কোন মূল্য আল্লাহ তা’আলার নিকট নেই।
 
অন্য এক হাদীসে এরশাদ হয়েছে, যখন কোন ব্যক্তি রোজা রাখে তখন তার উচিৎ অনর্থক কাজকর্ম ও অশ্লীল কথাবার্তা থেকে বিরত থাকা। এবং কেউ যদি তার সাথে ঝগড়া-বিবাদ করতে চাই তাহলে, সে যেন বলে দেয়, আমি রোজাদার।
 
প্রিয় পাঠক! লক্ষ করুন উপরোক্ত হাদীসে রাসূল সাঃ কতটা কঠোরভাবে আমাদেরকে রোজাবস্থায় মিথ্যা, গীবত, পরনিন্দা, অশ্লীল কথাবার্তা, অহেতুক কাজকর্ম থেকে বিরত থাকতে বলেছেন।
তাই রমজান মাসে আমরা রোজাবস্থায় সমস্ত গর্হিত কাজ থেকে বেচে থাকি এবং সাথে সাথে আমরা সারাবছরই সমস্থ গর্হিত কাজ থেকে বেচে থাকায় অভ্যস্ত হয়ে উঠি।
Facebook Comments