শুক্রবার, ডিসেম্বর ৯, ২০২২
Home > বিনোদন > পোড়ামন ২

পোড়ামন ২

Spread the love

রেদোয়ান জ্যোতি:কাহিনী সংক্ষেপ:
“কেন পিরীতি বাড়াইলারে বন্ধু ছেড়ে যাইবা যদি।” গানটি ব্র‍্যাকগ্রাউন্ডে বাজছিল। আর একটা মেয়ে গভীর রাতে গাছের ডালে শেষ আশ্রয় খুঁজে নিচ্ছিল। পরদিন ভোরবেলা। গ্রামবাসী জেনে যায় প্রেমে ব্যর্থ হয়ে, অন্তঃসত্ত্বাএকটা মেয়ে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। গ্রামের মাদ্রাসার হুজুর ফতোয়া দেয়, জানাজা হবে না। গ্রামবাসী দোজখে যাবে। অবশেষে বাবাই( ফজলুর রহমান বাবু) নিজের মেয়েকে নদীর চরে মাটি দেয়। সাথে থাকে মাদ্রাসার ছাত্র পিচ্চি সুজন শাহ রুপি আমাদের হিরো সিয়াম। উল্লেখ্য সিনেমার মূল চরিত্র দু’টি ছিল পূজা চেরি আর সিয়ামের দখলে।

পর্যালোচনা:
ছোট বেলার খেলার সাথী পরির ( পূজা চেরি) সাথে খুনসুটি বেশ ভালোই লাগে।
প্রেমের ছবি বাংলাদেশে অনেক হয়েছে। তবে এর পরিণতি দর্শককে ভালোলাগার দু:খ সাগরে ভাসিয়েছে, এ কথা বলার অপেক্ষা রাখে না। এই সিনেমাতে সমাজের ছোট বড় নানান অসঙ্গতি তুলে ধরা হয়েছে।
গানগুলো চমৎকার ছিল। নব্বই দশকের আবহে তৈরি ছবিটা শেষ পর্যন্ত দর্শককে মুগ্ধ করে রাখে।
মেহেরপুর জেলার বেশ কিছু দৃষ্টিনন্দন এলাকায় শুটিং করা হয়েছে।
সিয়াম আর পূজার অভিনয়েরর বেলায় তারা তাদের সেরাটাই দিয়েছে।
পরির ভাই-এর নেতিতিবাচক চরিত্রের অভিনয় দুর্দান্ত ছিল।
পরীর দাদী হিসেবে আনোয়ারার অভিনয় দেখানোর জায়গা ছিল না। সিয়ামের ভাই হিসেবে বাপ্পারাজের অভিনয়টা আরও অনেক ভাল করার সুযোগ ছিল।
সবমিলিয়ে ছবিটা এই খরার বাজারে বেশ ভালই। দর্শক আবারও হলমুখী হবে।
জাজ মাল্টিমিডিয়ার যাত্রা ক্রমান্বয়ে সফলতা ধরে রাখুক। আমার কাছে ছবিটির রেটিং-৬/১০।

আমাদের দেশের সিনেমার ইতিহাস খুব বেশি পুরনো নয়, তবে সমপর্ণের মাধ্যমে এই জায়গায়টিকে আরও মজবুত এবং উন্নত করা যায়। আমাদের আসলে অনেকটা পথ পাড়ি দিতে হবে। এখানে প্রাতিষ্ঠানিক এবং অপ্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা সাথে কারিগরি দক্ষতা সবদিকেই গুরুত্ব দিতে হবে। ভাল কোন সিনেমা হলে যেমন দর্শক হিসেবে আমাদের প্রত্যাশা অনেক বেড়ে যায়, তেমন খারাপ সিনেমা হলে হতাশা ছেয়ে ফেলে। প্লট বদলে যাচ্ছে, তবে এর সাথে মিলিয়ে সবার আগে সংশ্লিষ্ট সবার দৃষ্টিভঙ্গিরও পরিবর্তন ঘটানো দরকার। আমার বিশ্বাস সুদিন আসছে, চারিদিকে তার আভাস পাওয়া যাচ্ছে।

Facebook Comments