Saturday, October 16, 2021
Home > ছড়া/কবিতা > হৃদয়ে বাংলাদেশ | মাহবুবা স্মৃতি

হৃদয়ে বাংলাদেশ | মাহবুবা স্মৃতি

ভোরের ঊষালগ্ন থেকে গভীর রাত্রিরে যখন নিকষ আঁধার নামে তোমার বুকে,
আমি তোমার সব রংকেই অনেক বেশি ভালোবাসি!
ভালোবাসি তোমার শরীর থেকে নির্গত হওয়া
ঘামের গন্ধ,
কিংবা- বৃষ্টিভেজা সোঁদা ঘ্রাণে
স্নিগ্ধ আমেজ!
ভালোবাসি গ্রীষ্মের দাবদাহে চৌচির হওয়া তোমার ঐ বিদঘুটে শরীর ,
যেখানে লেগে আছে শতশত মানুষের হতাশার চাদর,
আমি ভালোবাসি,কারণ
দিনশেষে তুমিই আশীর্বাদের হাত তুলো!
ভালোবাসি তোমার কপোলে লেগে থাকা ছোট্ট শিশুর আদুরে হাত,
কিংবা- খিলখিলে ঐ রৌদ্দুর হাসি,
ভালোবাসি পবিত্রতা যেখানে আকাশচুম্বী,
সেই আকাশে বিমুগ্ধতার অবাধ কান্না!
আমি ভালোবাসি তোমার নিঃশ্বাসের ভিতরে থাকা কিছু দীর্ঘশ্বাস!
শত শত চোখের আশার স্রোত
হারিয়ে যাওয়া কিছু বেদনাহত রাত্রিচোখ!
ভেঙ্গে যাওয়া কিছু স্বপ্নের স্রোত!
আমি ভালোবাসি তোমার সিক্ত চোখের সমুদ্র লহর,
ভালোবাসি শুকিয়ে যাওয়া বালুকণায় হঠাৎ জড়িয়ে ধরা শিশিরের স্পর্শ,
শ্যামল কোমল ঘাসের বুকে ভোরের মুক্তোদানা!
আমি ভালোবাসি এখনো গায়ে লেগে থাকা রক্তাক্ত ইতিহাসের কালো দহন!
আমি ভালোবাসি তোমার তৃষ্ণার্ত ঠোঁটে গড়িয়ে পড়া স্নিগ্ধ কর,
ভালোবাসি নিষ্পাপ বুকে ভরসার ঐ আঁচলতল,
ভালোবাসি তোমার বুকের ভিতর জমানো তিক্ত কষ্টের গরিমা ,
ভালোবাসি পবিত্র ঐ মুখখানি –
যেখানে মুখ ঘষলেই ফিরে যাই আমার অহংকারের শেষ চূড়ায়!
আমি ভালোবাসি সময়ের প্রয়োজনে তোমার ঐ খরস্রোতার তীব্র চাহনি,
ভালোবাসি অশ্রুসিক্ত রোদেলা হাসি!
আমি ভালোবাসি মধ্য দুপুরে লেগে থাকা ক্লান্তিকর ধূলোবালি,
কিংবা তপ্ত দুপুরে তোমার গায়ে হিমেল হাওয়ার শান্ত জোয়ার,
ভালোবাসি পড়ন্ত বিকেলে বৃক্ষের শাঁখে লেগে থাকা আবেশী তণু ;
ভালোবাসি গোধূলি বেলায় তোমার ঐ সুন্দরি কেশ,
ভালোবাসি সন্ধ্যা রাত্রিরে জোনাকির ভিড়ে তোমার নিস্তব্ধ ঢাকা রাত্রিচর ,
ভালোবাসি ঘুমন্ত নগরীতে তোমাকে নিয়েই স্বপ্ন দেখতে,
আমি ভালোবাসি লাল সূর্যের আবরণে তোমার ঐ রাঙা অধর!
ভালোবাসি ছাপ্পান্ন হাজার বর্গমাইলের সোনার বাংলাকে!
আমি ভালোবাসি মাগো বহু সাধের আমার এই জন্মটাকে,
যাঁর মাতৃউদরে রক্তের নল কিংবা
স্নেহময়ী মাটির বুকে বেড়ে উঠা আমার আমিকে,
আমি ভালোবাসি আমার মৃত্যুকে,
যেখানে শেষ নিঃশ্বাসের শ্বাসটুকু আর
পচনধরা শরীরটাকে তোমাতেই আশ্রয় দিবে!
ভালোবাসি মাগো,ভালোবাসি প্রিয় বাংলাদেশকে!(সংক্ষিপ্ত)
Facebook Comments