Saturday, October 16, 2021
Home > ইসলাম > কেমন মৃত্যু চাই | মুহাম্মদ আইয়ূব

কেমন মৃত্যু চাই | মুহাম্মদ আইয়ূব

আমি অন্ধকার খুব ভয় পাই। একা এক রুমে ঘুমানোর অভ্যাস বিলকুল নাই। নির্জনে একা একা কোনদিন ঘুমিয়েছি বলে মনে পড়ে না। আজকাল বড় এক রুমে দুইজন ঘুমাচ্ছি। গতকাল রাতের কথা। আনুমানিক রাত সাড়ে এগারটা বাজে। পাশের জন মনের সুখে নাক ডেকে যাচ্ছে। মোবাইলের ব্যাপারে মনের সাথে সংগ্রাম করে ঘুমোনোর চেষ্টা করছি। হঠাৎ কিছু একটা পড়ার শব্দ শুনলাম। ভীতু বলে কথা, গুটিসুটি মেরে গেদু বাচ্চার মত হয়ে গেলুম।ঝড়ের গতিতে আয়াতুল কুরসি পড়ে বুকে ফু দিলুম। খানিক বাদে আমি আমাকে প্রশ্ন করলাম আইয়ূব! এমন একটা সময় আসবে যখন তুমি সাড়ে তিন হাত কবরে একা একা নির্জনে পড়ে থাকবে তখন? এই প্রশ্ন আমার জন্য নতুন কিছু নয়।জীবনে অনেক বার এই প্রশ্নে আমি নিস্তব্ধ হয়ে গিয়েছি।
এটা যখনই আমার সামনে আসছে তখনই আমি চিন্তার সাগরে ডুবে গেছি। প্রশ্নদাতাকে কোন দিন এটা বলে পাশ কাটিয়ে যাইনি যে, তখন দেখা যাবে!!!
এই প্রশ্ন সামনে আসতেই আমি আমাকে বলেছি এর জন্য সুন্দর মৃত্যু চাই। আর সুন্দর মৃত্যু মুখে মুখে চাইলে তো আর হবেনা এর জন্য আমাকে কিছু করতে হবে যেমন?
★আমি কারোর কাছে ঋণী থাকবনা (না বান্দা, না আল্লাহ)।
★ কাউকে কষ্ট দিবনা, কারোর গীবত করবনা।
★ কাউকে বিপদে ফেলবনা।
★ অন্যের কষ্টকে নিজের কষ্ট মনে করব।
★ পিতা মাতার সেবা, বড়দের সম্মান ছোটদের স্নেহ করব।
★ মানবতার জন্য যা করা দরকার তা-ই করব।
★সর্বোপরি আল কুরআনকে নিজের জীবনের ঘনিষ্ঠ বন্ধু বানাব।

এই কথাগুলো ভাবতেই মনের ভিতর এক ধরনের শান্তি অনুভূত হয়। চোখের সামনে নতুন এক জীবন দেখতে পাই। মনে মনে ভাবি আমার আর কারো দরকার নাই। এভাবে যদি কবরে যেতে পারি তাহলে ফেরেশতাদের চোখে চোখ রেখে কথা বলতে পারব। ধমক দিয়ে বলতে পারব জান্নাতের ফোরেশতা কোথায় আমার আরামের ব্যবস্থা করো। থুক্কু! এসব আমি বলতে যাব কেন, আমার আল্লাহ আছেনা?
আর যদি উল্টো হয় (আল্লাহ পাক হেফাজত করুন) তাহলে লক্ষ লোকের জানাযায় অংশগ্রহণ, প্রশংসার ফুলঝুরি আর বিরাট বিরাট যিয়াফত সব ভাড়ে যাবে। জানাযার লোক সমাগম দিয়ে আমি কি করব যদি আমার আল্লাহ বলেন ও আমার বান্দা না! আমার দয়াময় প্রভু যদি বলে ফেলেন ও আমার দাস না!! আমি তখন কি করব যদি আমার মালিক বলেন ও আমার গোলাম না!!! লাভ নাই, কোন লাভ নাই। আমার মালিক যদি বলে উঠেন করোনার দিনগুলোতে তুই ছিলি স্বার্থপর, নির্দয়, বিবেকশূন্য মানবতাহীন। তোর দুয়ার থেকে আমার অসহায় বান্দারা ফেরত গেছে সুতরাং আজ আমার রহমত থেকে তুই ও ফিরে যা। হায় হায় করা ছাড়া আমার আর কিছু করার থাকবেনা।
আল্লাহ পাক আমাদের সবাইকে রক্ষা করুন। (দেশ ও দশের জন্য আর মাত্র কয়েকটি দিন ঘরে থাকুন, সতর্ক থাকুন, সবাইকে বাঁচতে দিন। জানাযার নামে আজ ব্রাহ্মণবাড়ীয়ায় যা হল তা বাঙালি জাতীর কান্ডজ্ঞানহীনতার এক কালো অধ্যায় হিসেবে লেখা থাকবে। এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি করোনার এই দুর্যোগে আর যাতে না হয় সে ব্যাপারে সবাইকে সজাগ ও সতর্ক থাকতে হবে। ভালো থাকো বাংলাদেশ)।

লেখক : শিক্ষক ও প্রাবন্ধিক

Facebook Comments