শুক্রবার, ডিসেম্বর ৯, ২০২২
Home > ফিচার > ক্যালিগ্রাফি, দেয়ালে ফুটে ওঠুক শিল্পের ছোঁয়া

ক্যালিগ্রাফি, দেয়ালে ফুটে ওঠুক শিল্পের ছোঁয়া

Spread the love

হাতের লেখার শৈল্পিক ও নান্দনিক উপস্থাপনই হল ক্যালিগ্রাফি। এটি যে কোনো ভাষারই হতে পারে। তবে আরবি ভাষাতেই এর চর্চা বেশি। মানুষ স্বভাবজ সৌন্দর্য পিপাসু। শিল্প প্রতিটি মানুষকেই খুব কোমলভাবে আকর্ষণ করে। অনেকেইে তার একান্ত চারপাশটাকে নিজের মতো করে গুছিয়ে নিতে চান। নিজের ঘর, ঘরের দেয়াল, মেঝ এসবে কোন রঙ বা কি ধরণেল টাইলসের ব্যবহার তা নিয়ে অনেক প্ল্যান থাকে। ঘরের দেয়ালে খুব সুন্দর একটা ছবি, একটা আর্ট রাখতে কেই বা না চায়। হ্যাঁ! তারা চাইলে এই নান্দনিকতা ভিন্ন আরেকটা আর্টে উপস্থাপন করতে পারেন। সাজাতে পারেন ভিন্ন অনিন্দ্য শিল্পের ছোঁয়ায়। সেটা হলো ক্যালিগ্রাফি। শিল্পের মহত্তর এই ধারাটা সম্পর্কে আজকাল অনেকেই সচেতন। তাই আপনার ঘর সাজাতে আধুনিকতার নতুন ছোঁয়ায় ক্যালিগ্রাফি হতে পারে অন্যতম পছন্দ।


মূলত আরবি ভাষায় পবিত্র ধর্মগ্রন্থ কোরআনের অনুলিপি তৈরি ও প্রচারের প্রয়োজনেই ইসলামী ক্যালিগ্রাফি বিকশিত হয়েছিল বলে জানা যায়। তাই আরবি ক্যালিগ্রাফির চর্চাটাই একটু বেশী ছিলো সবসময়। কিন্তু মধ্যযুগের কয়েক শতাব্দী ধরে ক্যালিগ্রাফি পদ্ধতি মুসলিম শিল্পকলার অন্যতম মাধ্যম হিসেবে গড়ে উঠেছে ঠিক। ‍তবে পরবর্তী সময়ে তা কেবল ধর্ম প্রচারের ক্ষেত্রেই সীমাবদ্ধ থাকেনি। বিভিন্ন ভাষায় নানা মাধ্যমে তা বিস্তার লাভ করেছে। অনেকেই নিজ নিজ ভাষা, বর্ণনা, শব্দশৈলিতে এটিকে দিয়েছে নানারূপ। কখনো বইয়ের প্রচ্ছদে, স্থাপত্যশিল্প, বুননশিল্প, মৃৎশিল্পসহ বিভিন্ন মাধ্যমে এই শিল্প প্রসার লাভ করে। তাই বেশ কদিন আগেও শিল্পবোধ বা রুচিবোধ আছে এমন কোন বাড়ীতে গেলে তাদের দরোজা, প্রধান ফটক বা ঘরের দেয়ালে আরবি ক্যালিগ্রাফি দেখা যতে। সেগুলো ছিলো প্রায় নির্দিষ্ট। যেমন, আল্লাহু, বা লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ। কিন্তু এখন ক্যালিগ্রাফি শিল্প বিস্তৃত লাভ করায় তৈরী হচ্ছে নানাবিধ অনিন্দ্য সুন্দর সব বাংলা ক্যালিগ্রাফি। কবিতার পঙক্তি, ছবি বা রঙের উপর সুন্দর কথামালা নানা কায়দায় লিখে শিল্পের অনন্য সুন্দর বহিঃপ্রকাশ ক্যালিগ্রাফি সকলের আগ্রহে। তাই দিয়ে সাজানো হচ্ছে ঘরের দেয়াল, বসার ঘর বা ড্রয়িং রূম। তাই সুন্দর সব ক্যালিগ্রাফি আপনার ঘরের সৌন্দর্যকে বাড়াতে পারে আরো কয়েকগুণ। ক্যালিগ্রাফি দেয়ালে এনে দিতে পারে সুন্দরের শিল্পোত্তর ছোঁয়া।
আরবি ও বাংলা উভয় হরফেই দক্ষ একজন তরুণ ক্যালিগ্রাফার ইসমাঈল হুসাইন। ক্যালিগ্রাফিতে কিভাবে দেয়াল বা ঘর সাজানো যায়! জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিভিন্ন পদ্ধতিতে দেয়ালকে সুন্দর ও বর্ণিল করা যেতে পারে। যদি আপনার নিজের বেডরুমটা সাজাতে চান, তাহলে খাটের ঠিক মাথার পার্শ্বটায় দেয়ালে একটি সুন্দর ক্যালিগ্রাফি রাখতে পারেন। দেয়ালের রঙের সাথে ম্যাচ করে একটি রঙিন বাতির ব্যবহার করুন একদম ক্যালিগ্রাফিটির উপর। এতে দেয়াল, বাতি ও ক্যালিগ্রাফিতে ব্যবহৃত রঙে একটি দুর্দান্ত কম্বিনেশন তৈরি হতে পারে। শুধু আরবী নয় দেয়ালে টাঙানো ক্যালিগ্রাফিগুলো বাংলায় ও হতে পারে। তেমনিভাবে মাথার কাছে বা রুমের সবচেয়ে প্রধান জায়গা। যেখানে সবার আগে চোখ যায়। এই জায়গাটিতেই রাখতে পারেন একটি দারূণ ক্যালিগ্রাফি৷ দেখা যাবে খুব অল্পতেই আপনার বেড রুমের সৌন্দর্য্য বেড়ে যাবে কয়েকগুন। এবার ড্রয়িং রুম। ড্রয়িং রুমে সাজাতেও কোন ঝক্কি ঝামেলা নেই। দেয়ালের মাপবুঝে মানানসই তুলনামূলক একটি বা দুটি ক্যালিগ্রাফিই রুমটিতে সৌন্দর্য্যের আবহ ফুটিয়ে তুলতে পারে। এক্ষেত্রেও যদি সুন্দর আলোকজ্জল বা নরোম আধো আলোর কোন বাতি ব্যবহার করা যায়, তাহলে ক্যালিগ্রাফির আবেদনটি চমৎকারভাবে ফুটে ওঠবে। তাই বড় বড় পোট্রেটের তুলনায় নিতান্ত কম খরচেই আপনার বসা ও থাকার রুমটা সাজিয়ে তুলতে পারবেন চোখ জুড়ানো নানা রকমের অনিন্দ্য সব ক্যালিগ্রাফি টাঙিয়ে।


কোথায় পাবেন ?
মূলত আজকাল অনলাইনেই এগুলো সবচেয়ে ভালো পাওয়া যায়। যারা ক্যালিগ্রাফি করছে তাদের অনেকেরই নিজস্ব পেইজ বা ফেইসবুক পেইজ থাকে। সেখানেই তারা তাদের কাজগুলো আপলোড করছে নিত্য। ইনবক্সে দরদাম করে সহজেই কেনা যেতে পারে পছন্দের ক্যালিগ্রাফি। সহজে নিউ মার্কেটের নীচ তলায় খোঁজ করলেও আপনি তা পেতে পারেন। তবে সেখানকার ক্যালিগ্রাফিগুলো বেশীরভাগই কমন। আরবিই বেশী। বাংলা ক্যালিগ্রাফি খুব একটা নেই সেখানে। তাই সবচেয়ে সহজ ও সুন্দর পন্থা হলো হাতের স্মার্টফোনের ব্যবহার। সময় ও বেঁচে গেল। ইচ্ছেমত দেখে, বুঝেশুঝে কেনাও গেল। পছন্দসই কোন ক্যালিগ্রাফী পেলেই তবে যোগাযোগ করা।


দাম কেমন ?
আগেই বলেছি পোট্রেটের তুলনায় একটি ক্যালিগ্রাফির দাম খুবই কম। এক কথায় বললে একদম নাগালের মধ্যে। সাধারণত যারা নবীন কিন্তু কাজটা করছে খুব দারূণ। তুলির আচরে ক্যালিগ্রাফিটা বেশ চমৎকার ফুটিয়ে তুলছে তারা। এদের ক্যালিগ্রাফিগুলোর দাম সাধারণত-১৫০০ টাকা থেকে ৩০০০ টাকার ভেতরেই থাকে। অর্থাৎ হাজার পনেরশো বা আড়াই তিন হাজার টাকা খরচ করলেই আপনি পাচ্ছেন দারূণ দারূণ শিল্পমান সমৃদ্ধ ক্যালিগ্রাফি। আপনার ঘর, ঘরের দেয়াল সাজাতে পারেন আরো সুন্দরভাবে। দেয়ালে ফুটে ওঠবে শিল্পের ছোঁয়া।
এছাড়াও কাজ এবং ব্যক্তির অভিজ্ঞতার উপর নির্ভর করে অনেক ক্যালিগ্রাফির দাম হয়ে থাকে। সেগুলোর দাম পাঁচ,দশ থেকে নিয়ে তিরিশ হাজার অবধি ঠেকতে পারে। বিভিন্ন ফেষ্টিভালে অনেক পুরনো এবং বিখ্যাত ক্যালিগ্রাফারের ক্যালিগ্রাফির এমন দাম উঠতে দেখা যায়।


লিখেছেন-কাউসার মাহমুদ

Facebook Comments