Home > রমজান প্রতিদিন

রোজাদারের দিল খোশ ইফতারে

রোজাদারের দিল খোশ ইফতারে আদিল মাহমুদ ● ‘স্রষ্টার হুকুম পালন করতে/রাখব দিনে রোজা/রোজাদারের জান্নাতে যাওয়া/হবে খুব সোজা। দিনের শেষে ইফতার করে/চাইব আমরা পানা/পরকালে আল্লাহ যেন/দেন জান্নাতী খানা।’ পবিত্র রমজানুল মোবারকে মানুষের জন্য ইফতার আল্লাহর পক্ষ থেকে এটি এক বিশেষ নিয়ামত। ইফতার রমজানের পরিবেশ তৈরিতে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। সারাদিন রোজা রেখে ইফতার করটা

বিস্তারিত পড়ুন

কুরআন-হাদীসের আলোকে রমজানের ফযীলত

কুরআন-হাদীসের আলোকে রমজানের ফযীলত আদিল মাহমুদ ● আমাদের সৃষ্টিকর্তার অফুরন্ত রহমত-বরকত, মাগফিরাত ও নাজাতের অমিয় বারতা নিয়ে শুভাগমন করলো হিজরি ১৪৪০ সালের মাহে রমজানুল মোবারক। আজ পবিত্র রমজানের দ্বিতীয় দিন। উম্মতে মুহাম্মাদির জন্য প্রতি বছর এই পবিত্র মাস এক শুভ উপলক্ষ। তাদের জন্য অপরিসীম প্রতিদান লাভের উদ্দেশ্যে ইবাদত ও নেক আমলের বসন্ত

বিস্তারিত পড়ুন

রমজান এবং মাগফিরাত

প্রিয় নবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) বলেছেন, রমজান মাসের প্রথম দশক হলো রহমত; তার দ্বিতীয় দশক হলো মাগফিরাত; এর শেষ দশক হলো নাজাত। (বায়হাকি শরিফ)। রমজান হলো প্রশিক্ষণের মাস। আল্লাহ চান তাঁর বান্দা তাঁর গুণাবলি অর্জন করে সে গুণে গুণান্বিত হোক। হাদিস শরিফে রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেছেন, তোমরা আল্লাহর গুণে গুণান্বিত হও।

বিস্তারিত পড়ুন

রমাযান প্রতিদিন

জেনে রাখা ভালোঃ রোযা ফরয হয়েছে ২য় হিজরিতে করবোঃ দান সদকা ছাড়বোঃ গিবত বা পরনিন্দা মাসআলা: ইচ্ছে করে মুখ ভরে বমি করলে রোযা নষ্ট হয়ে যায় ভুল ধারণাঃ রোযা অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোয়া নষ্ট হয়ে যায় আমলঃ পবিত্র কুরআনুল কারীমের ৪র্থ পারা তেলাওয়াত। ( প্রতি নামাজের আগে ও পরে পাঁচ পৃষ্ঠা করে পড়লে সহজেই এক পড়া হয়ে যাবে) সুসংবাদঃ কোন রোজাদারকে ইফতার করালে কবুল

বিস্তারিত পড়ুন

অক্ষর রমজান প্রতিদিন

জেনে রাখা ভালোঃ রোযা সব্দটি ফার্সি যার অর্থ দিবস। আরবীতে একে বলে সওম। করবোঃ দৃষ্টিকে সংযত ছাড়বোঃ মিথ্যা বলা মাসআলা: বমি হলে রোযা ভাংবে না, যদিও মুখ ভরে বমি হয়। ভুল ধারণাঃ রোযা রেখে ফারফিউম ব্যাবহার করলে রোযা হালকা হয়ে যায়। আমলঃ পবিত্র কুরআনুল কারীমের ২য় পারা তেলাওয়াত। ( প্রতি নামাজের আগে ও পরে পাঁচ পৃষ্ঠা করে পড়লে সহজেই এক পড়া হয়ে

বিস্তারিত পড়ুন

অক্ষর রমজান প্রতিদিন

আজ ১লা রমাযান ১৪৩৯ হি. রমাযান প্রতিদিনে অক্ষরের প্রথম দিনের তোহফাঃ।   জেনে রাখা ভালোঃ   রমাযান শব্দটি আরবী 'রাময' ধাতু থেকে উদ্ভূত, যার অর্থ জ্বালিয়ে দেওয়া। এই মাসটি যেহেতু রোজাদারের পাপরাশিকে জ্বালিয়ে দেয় তাই এর নাম রমাযান। করবোঃ সবার সাথে কোমল আচরণ ও মিষ্টি ভাষায় কথা বলা।   ছাড়বোঃ কটু কথা বলা, লোককে কষ্ট দেওয়া।   মাসআলা: রোযা রেখে

বিস্তারিত পড়ুন