Saturday, January 22, 2022
Home > Uncategorized > স্মার্ট যুবক ।। সাদিয়া আফরিন বিভা

স্মার্ট যুবক ।। সাদিয়া আফরিন বিভা

Spread the love

চায়ের দোকানে চা খাচ্ছে নাজমুল। উপমহাদেশের একটা ঐতিহ্যবাহী ইসলামী বিদ্যাপীঠের উচ্চতর হাদিস বিভাগে অধ্যায়ন করছে সে। পড়াশোনার পাশাপাশি লেখনীতেও বেশ পাকা হাত তার। লেখে দু হাতে। জাতীয় শীর্ষক দৈনিকে ছাপে তার লেখা গুরুত্বপূর্ণ বহু ফিচার।

মাদরাসার অভ্যন্তরে মোবাইল ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষেধ। তাই চায়ের দোকানে এসে চা খেতে খেতেই লেখাগুলো পাঠাতে হয় পত্রিকা অফিসগুলোতে। লেখালেখি করে সেখান থেকে কিছু টাকা পাওয়া যায়। সাথে বাড়ি থেকে কিছু টাকা আসে। তা দিয়েই বড় কষ্ট করে পার করতে হয় তার দিন এবং মাসগুলো।

এ বিদ্যাপীঠে দীর্ঘ সাতটি বছর যাবৎ অধ্যায়ন করছে নাজমুল। ছোটবেলাটা তার এখানেই কেটেছে বলা চলে। সে হিসেবে দোকানী থেকে শুরু করে এলাকার বহু ছেলে পেলেও পরিচিত তার। সবাই খুব মহব্বত করে তাকে। ছোটো থেকে বড়ো, যুবক থেকে বৃদ্ধ, সবার কাছেই অত্যন্ত প্রিয় নাজমুল।

বাঁ হাতে চায়ের কাপ ধরে ডান হাতের একটা আঙুল লাগিয়ে কাপের সাথে চা খাচ্ছে সে। হঠাৎ এলাকার এক বড় ভাই দোকান ভর্তি মানুষের সামনে জোর গলায় বলে উঠলো, এই মোল্লা! তোর কি ডান হাত নেই? বাঁ হাতে চা খাচ্ছিস কেনো? যখনই চা খেতে আসিস,তখনই দেখি মোবাইল চাপিস তোর সমস্যা কি?

নাজমুল কর্কশ কন্ঠস্বর শুনে রীতিমত থতমত খেয়ে গেল। নির্বাক হয়ে ডান দিকে তাকলো সে। সম্মান প্রদর্শন স্বরুপ বললো, ভাইয়া! আমি তো ডান হাতের একটা আঙুলও কাপের সাথে লাগিয়ে খাচ্ছি। তাছাড়া আমার মোবাইলের কাজটা এখন জরুরী। তাই কাজটা করছিলাম।

সাথে সাথে আবার চেঁচিয়ে উঠলো বড় ভাইটা। বললো, আমরা ছয়টা-সাতটা গার্লফ্রেন্ড চালাই। অফিস করি।বন্ধুদের সাথে আড্ডা দেই। ফ্যামিলির সাথে যোগাযোগ করি। আমাদের তো এতো মোবাইল চাপা লাগে না। তোর এতো মোবাইল চাপা লাগে সেটা বল? নাজমুল এবার লজ্জায় আর কিছু বললো না। স্মার্ট যুবকের সামনে কথা না বলে চুপ থাকাকেই সে বেস্ট মনে করলো।

পাশে বসা আধপাকা চুলের আংকেল বড় ভাইটাকে উদ্দেশ্য করে বললো, খুব গর্বের বিষয় তুমি ছয়টা-সাতটা গার্লফ্রেন্ড চালাও? নিজেকে খুব স্মার্ট যুবক ভাবো তাই না? আর এই ছেলেটা দেখছি কারো সাথে কোনো কথা না বলে একটা লেখা লিখছে। তাতে সে খুব খারাপ হয়ে গেছে তাই না?

এলাকার বড় ভাইটার প্রত্যেকটা প্রশ্নের দাঁতভাঙা জবাব ছিলো নাজমুলের কাছে। নববী আদর্শে আদর্শীত বলে আজ সমস্ত অপমান সহ্য করেছে মুখ বুঝে।

Facebook Comments