Monday, January 17, 2022
Home > গ্রন্থ বিশ্ববিদ্যালয় > ব্যতিক্রমী বই পর্যালোচনাঃ (গ্রিক সভ্যতা) সৈয়দ আমিরুল ইসলাম

ব্যতিক্রমী বই পর্যালোচনাঃ (গ্রিক সভ্যতা) সৈয়দ আমিরুল ইসলাম

Picture Copyright: Niaz Mahmud
Spread the love

বই  পর্যালোচকঃ

রবিউল আউয়াল দিপু

মুল ইতিহাস আসলে দুটিমাত্র নগর রাষ্ট’কে কেন্দ্র করে আবর্তিত : স্পার্টা এবং এথেন্স। দুটি নগরের দৃষ্টিভঙ্গির ফারাক আকাশ পাতাল। স্পার্টা স্বেচ্ছাচারী অভিজাত শাসিত রাষ্ট আর এথেন্স গনতান্ত্রিক সর্ব-সর্বসাধারণের অভিমতে পরিচালিত। অবশ্য সেইসব সাধারণ সকল অধিবাসী নয়, কেবল নাগরিকবৃন্দ, যারা ছিল বিশাল জনগোষ্টির ক্ষুদ্রতম অংশ। নাগরিকদের জীবনসঙ্গীনিদের আবার ছিল না কোন অধিকার। নারীরা ছিল রাজনৈতিক অধিকার বঞ্চিত। অনেকটাই অপাঙক্তেয়। তবুও এথেন্স ব্যতিক্রম। কারণ এতটুকু অধিকার সেকালে অন্য কোথাও ছিল অভাবনীয়। তবে এথেন্স গনতন্ত্রই হোক আর হোক স্পার্টার অভিজাততন্ত্র, সকল রাষ্ট্রেরই উৎপাদন ব্যবস্থায় ছিল দাসশ্রম। দাসরাই চালু রাখবে গ্রিসদের অর্থনীতি, মোটামুটি এটাই পণ্ডিতদের মতামত। ক্ষেতে ফসল ফলানো থেকে গৃহের দৈনন্দিন কাজ তারাই করত। অধিকারবিহীন জীবজন্তুর মত তাদের হতে হত প্রভুর অনুরক্ত। অন্যথায় মৃত্যূ ছিল অবধারিত। এদের এই বঞ্চিত জীবনের কাহিনী লেখার মত ইতিহাসবিদ কেউ ছিলেন না। নইলে নিশ্চয়ই পাওয়া যেত তাদের সংগ্রামী জীবনের হাজারো ঘটনা। গ্রীকের ইতিহাস তাই এক বিরাট মানুষ্য সমাজকে চিরবঞ্চিত রেখে আর একদল সুবিধাভোগী জীবনের কাহিনী মাত্র।
.
বর্ণনাসূত্র : ‘গ্রিক সভ্যতা’ লেখক : সৈয়দ আমিরূল ইসলাম।
.
নোট : চমৎকার ইতিহাস নির্ভর একটা বই। প্রায় তিন হাজার বছর আগের গ্রীক সভ্যতার নানান খুটিনাটি লেখক এই বইয়ে চমৎকার তুলে ধরেছেন। যেখানে সেই সময়কার মানুষের জীবনের কিছুটা ধারণা পাওয়া যায় বলে মনে হল।

Facebook Comments